.৩০৩

 কোলকাতা মানে ধোঁয়া গেলার প্রতিশ্রুতি
কোলকাতা মানে লাঠিচার্জ মাতোয়ারা
কোলকাতা মানে অফিস ভাঙ্গার পরে
কোলকাতা মানে মোমবাতি গোবেচারা

       গ্রামসির আমসি পদচিহ্ন কঠোপনিষদের কোন কোন ছত্রে পড়েছিল সে নিয়ে মাথা খুঁড়ে পাণ্ডুরাজার ঢিবি বের করে ফেলেছিল নবকুমার । এসময় একটা হেল্পিং মুণ্ডু পেলে বড় ভালো হত। কিন্তু KK-র হেল্পিং হ্যাণ্ড এখন ISD – অনসাইটে স্টকহোম। নাহলে কপালি অন্তত একটা কিছু আলো দেখাতে পারত এই অনন্ত গঙ্গাপ্রবাহ মধ্যে। ওদিকে সেকেন্ড ইয়ারে পড়া রুমমেটটা কোত্থেকে পুলিশ না কিসের কামড় খেয়ে এসে মাথায় রুমাল মেখে শুয়ে। অর্বাচীনতার পরাকাষ্ঠা একটা। ধুস – একেই বলে সৃজনশীলতার প্রতিবন্ধকতা।

***********
বলতে পারে নি সে        যেটুকু যা ভাষা ছিল
কেঁপে ওঠা গলার শিরায়
তারপর ভোররাতে        কৈশোর চৌপাটে
ভয়ানক অলজ্জতায়
এভাবেও মেরে ফেলা যায়
এভাবেও মেরে ফেলা যায়

        চেঞ্জিং রুমে শার্ট আর ব্লেজার ছেড়ে কুর্তিটা গলাতে গলাতে আপনমনে হাসছিল ওফেলিয়া বিশ্বাস। হেমেন স্যারের হাতদুটো অসংস্কৃত হতে পারে, কিন্তু ওনার ন্যায়বিচার হানি সিং এর মতই নির্ভুল। কি ভেবেছিল মাগীটা… কোথাকার সাতঘাটের এঁটো, ছোটলোকের রেপমাজাকী… সে কিনা ঢুকে পড়বে আদায়-কাঁচকলায়-এর মত রেস্টুরেন্টে। ওরে, এখানে কালচারাল লোকেরা খেতে আসে। দিয়েছে শালীর মুখে লাথ মেরে ওফেলিয়া। হরিষা কিসব বলতে এসেছিল বটে … হেমেন স্যার এক ধাতানিতে ওকে চুপ করিয়ে ওফির পিঠে হাত বুলিয়ে দিলেন।ব্রা-র স্ট্র্যাপটা ঠিক করতে করতে বেরিয়ে পড়ল সে, ন’টার মেট্রোটা ধরতেই হবে … ক্লাস বজায় রেখে গ্লাসবাবুর প্রশংসা পাওয়া গেছে, প্রোমোশন আর ঠেকায় কে।

************************
লিখেছিলে তবু পড় নাই জানায়ে গেলে
খিড়কির পথ দিয়ে চোথাখানা ফেলে গেলে

নিতান্ত অবিমৃষ্যকারিতা। সতেরো লাইনের করুণারসকে সবে যখন আঠারো নম্বরে বিপ্লব-স্ফুলিঙ্গে ট্রান্সফার করতে যাবে, অমনি সে এলো। সে এলো নতুন বেশে, অচিন মনের ভাষার আমসত্ত্ববিধানের ভগ্নতরী নিয়ে। শশী রক্তলাল চোখে নয় বছরের ছিটমহল কন্যে কুসুমের দিকে তাকাল, তারপর বললো,- ওসব বাংলা-ফাংলার নিয়ম আমি বুঝি না, তোমাকে ওয়ার্ল্ড সিটিজেন হতে হবে কুসুম …বাংলা, বাংলা … যতোসব…তোমার পড়াশোনায় মন নাই কুসুম? … পড়ন্ত CFL –এর আলোয় অবাক চোখ তুলে কুসুম বললো – ওহ ড্যাড … ওই জন্যে তুমি ইংলিশ-এ বাংলা পোয়েট্রি লেখো?

************

image001

এদ্দূর   অব্দি যারা পড়ে ফেলেছেন তাদের জন্য উপরোক্ত ছবির জিনিসটি উপহার রইল। তুলে নেবেন। .৩০৩ আপনাদের জন্য আকুলিবিকুলি করছে।

One Reply to “.৩০৩”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *