প্রবাসীর ডায়েরি ৪

আজ আমি অসম্ভব উত্তেজিত। এত এত কথা বলার আছে যে গুছিয়ে সাজিয়ে উঠতে পারছি না। কাকে আগে কাকে পরে রাখবো ভাবতে ভাবতে দিশেহারা অবস্থা।

আর বিলম্ব নয়। 'জয় জয় নির্মলার জয়' বলে শুরুই করে দি। নির্মলা আর আমার দুজনেরই অজান্তে ধীরে ধীরে বেড়ে উঠছে নির্মলা-কাব্য। আমাকে যে ও খেরোর খাতা হিসেবে দেখে তাতে আমার সন্দেহ নেই। কিন্তু, ও এখনো পর্যন্ত জানে না, যে কেউ আড়ালে আড়ালে ওর দৈনিক সংবাদ লিপিবদ্ধ করার ভার নিয়েছে, বিনা পারিশ্রমিকে। নির্মলার রোজ কাজে আসায় আমি অভ্যস্ত। কিন্তু ও কোন দিন কী প্রসঙ্গে কথা বলবে বা আদৌ বলবে কি না তার বোতাম আমাদের দুজনের কারুর হাতেই নেই। কোন বড় মাপের যন্ত্রীর তত্ত্বাবধানেই এই খেলা সম্ভব। তাই অকারণ জোর খাটানোর প্রশ্নই ওঠে না।

প্রবাসীর ডায়েরি ৩

মেলামেলি

নরম নীল আকাশ। তাতে কিছু মেঘ একে অপরের পিছু ধাওয়া করেছে। কেউবা ধীরে ধীরে নিজেকে বড় করে চলেছে। আবার কেউ তাদের আধো আধো হাত দিয়ে নরম নীল রংকে এক মনে আবিষ্কার করে চলেছে। এরই মধ্যে, রোদ কখনো চড়া গলায়, কখনো ফিসফিস করে সময় জানিয়ে চলেছে। read more

প্রবাসীর ডায়েরি ২

Okolkata_OK_-_Dharabahik

 “স্যার, পাবলিক আমায় নেবে তো?”

একটা হাল্কা উন্মাদনা বোধ করছি। আমার লেখা জনৈক ব্লগে ছাপানো হচ্ছে। একটু একটু করে পাঠকের সংখ্যা বাড়ছে। সকাল বিকেল কড়া নজর রাখছি ফেসবুকে এবং ব্লগে কে লাইক করছে, কে কী কমেন্ট করছে তা জানার জন্য। মাঝে মধ্যে মনে হচ্ছে একটু বাড়াবাড়ি করে ফেলছি। তাও, নিজেকে থামাতে পারছি কই? read more

প্রবাসীর ডায়েরি ১

টেস্টিং, টেস্টিং, গিনিপিগ টেস্টিং

সকালবেলা হলে নিয়ম করে খাতা নিয়ে বসাটা কেমন যেন আস্তে আস্তে নিয়মে পরিণত হচ্ছে। কী লিখব না ভেবে লিখতে শুরু করা কেমন জানি কী চাইব না জেনে ভগবানের কাছে হাত জোড় করার মত! আমার স্থির বিশ্বাস হাত জোড় করার পরই চাওয়ার লিস্টটা ভাঁজ ভাঙে। read more